ইউক্রেনে দুঃখজনক ঘটনা অনেকের হৃদয় ভেঙে দিয়েছে: চীনা রাষ্ট্রদূত

আন্তর্জাতিক

Share This News !

ঢাকায় নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, ইউক্রেনে চলমান দুঃখজনক ঘটনা অনেকের হৃদয় ভেঙে দিয়েছে। চীন শান্তির পক্ষে এবং যুদ্ধের বিপক্ষে।

এটি আমাদের ইতিহাস ও সংস্কৃতিতে গভীরভাবে লিপিবদ্ধ রয়েছে। আমরা জাতিসংঘে এবং অন্যান্য অনেক অনুষ্ঠানে এ বিষয়টি নিয়ে আলোচনার সময় আমাদের মতামত পরিষ্কার করেছি। বুধবার (২০ এপ্রিল) এক ভিডিও বার্তায় তিনি এ কথা বলেন।

চীনা রাষ্ট্রদূত বলেন, একদিকে আমরা আন্তর্জাতিক আইন এবং সার্বজনীনভাবে স্বীকৃত নিয়মগুলোকে সমর্থন করি যেগুলো তাদের মূলে জাতিসংঘের সনদকে রেখে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক পরিচালনা করে। এটা আমাদের গভীর বিশ্বাস যে, সকল দেশের সার্বভৌমত্ব ও আঞ্চলিক অখণ্ডতাকে সম্মান করতে হবে।

অন্যদিকে চীন অভিন্ন, ব্যাপক, সহযোগিতামূলক এবং টেকসই নিরাপত্তার দৃষ্টিভঙ্গিকে উৎসাহিত করে। রাশিয়া ও ইউক্রেন উভয়ের বৈধ নিরাপত্তা উদ্বেগগুলোকে সবচেয়ে বৃহৎ বিদ্যমান সামরিক জোট কর্তৃক সম্মান এবং ভালোভাবে নিষ্পত্তি করা হলে, সশস্ত্র সংঘাত এড়ানো যেত। শীতল যুদ্ধের মানসিকতা এবং ব্লকের সংঘর্ষ বিশ্বের জন্য একটি অভিশাপ ছাড়া কিছুই নয়, এই সত্যের পুনরায় শিক্ষা লাভ করতে মানবতাকে এক বিশাল মূল্য দিতে হলো।

তিনি বলেন, শান্তিকে সুযোগ দিতে, চীন দুটি অগ্রাধিকার নির্ধারণ করে। শান্তি আলোচনা উৎসাহিতকরণ এবং মানবিক সংকট থেকে মুক্তি দান। চীন একটি ছয় দফা মানবিক উদ্যোগ সামনে রেখেছে এবং এখন পর্যন্ত ইউক্রেনের যুদ্ধ-বিধ্বস্ত মানুষদের জন্য মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার মানবিক সহায়তা দান করেছে।

লি জিমিং বলেন, যুদ্ধবিরতির আহবান নাকি শত্রুতার ডাক, খাদ্য নাকি প্রাণঘাতী অস্ত্র সরবরাহ, আগুন নেভানোর চেষ্টা নাকি আগুনে ঘি ঢালা – কোনটি সমস্যা থেকে উত্তরণ সহজ করছে আর কোনটি সমস্যাকে আরও ঘনীভূত করছে আপনি কী মনে করেন?

Leave a Reply

Your email address will not be published.